বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

সাইবার অপরাধীদের অধিকাংশ উচ্চশিক্ষিত

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বার্তা : সাইবার আইন সম্পর্কে যথাযথ ধারণা না থাকায় নিজেদের অজান্তেই মানুষ এ ধরনের অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। আর সাইবার অপরাধীদের মধ্যে অধিকাংশই হচ্ছে উচ্চশিক্ষিত, যা সমাজের জন্য অশনি সংকেত। তাই সাইবার অপরাধ থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে হলে এ-সংক্রান্ত আইন-কানুন সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখতে হবে। 

শনিবার রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) আয়োজিত ‘পেশাগত ও ব্যক্তিগত জীবনের সুরক্ষায় সাইবার নিরাপত্তা’ শীর্ষক এক কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

আইসিএবির উইমেন অ্যান্ড লিডারশিপ (ডব্লিউআইএল) কমিটি এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের (বিডিওএসএন) টেক ব্যাক দ্য টেক কর্মসূচির যৌথ উদ্যোগে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে আইসিএবির সদস্য বিশেষ করে নারী সদস্যদের সচেতনতার জন্য এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইসিএবির প্রেসিডেন্ট দেওয়ান নুরুল ইসলাম। উদ্বোধনী বক্তা ছিলেন আইসিএবির সাবেক প্রেসিডেন্ট ও উইমেন অ্যান্ড লিডারশিপ কমিটির চেয়ারম্যান পারভীন মাহমুদ। সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন দ্য কম্পিউটারস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খন্দকার আতিক-ই-রব্বানী। কর্মশালায় দৈনন্দিন জীবনে সাইবার নিরাপত্তা, ইন্টারনেট ব্যবহারে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা, সাইবার হুমকি, যৌন হয়রানিমূলক বার্তা, অনলাইন শিকারি, করণীয়-বর্জনীয় এবং ওয়েব নিরাপত্তার কৌশল নিয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের (বিডিওএসএন) জেনারেল সেক্রেটারি মুনির হাসান ও রাইট টাইম লিমিটেডের এমডি ও সিইও মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমান ভূইয়া। প্যানেল আলোচক ছিলেন জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান লুনা সামসুদ্দোহা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স অ্যান্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারপারসন লাফিফা জামাল, রবি আজিয়াটার মার্কেট স্ট্রাটেজি অ্যান্ড প্ল্যানিং বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার কানিজ ফাতেমা এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ডিভিশনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার সাইদ নাসিরুল্লাহ।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে বিডিওএসএনের জেনারেল সেক্রেটারি মুনির হাসান বলেন, বিশ্বে প্রতি ১ মিনিটে ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ টেক্সট মেসেজ পাঠায়, ইমেইল পাঠায় ১৮ কোটি ৭০ লাখ মানুষ আর ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ লাখ। বিষয়বস্তু সম্পর্কে না জেনেই ৭৮ শতাংশ মানুষ সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট শেয়ার ও লাইক দেয়। সব প্রতিষ্ঠানেরই তাদের তথ্যের নিরাপত্তার জন্য নিরাপদ ইমেইল আইডি থাকা বাঞ্ছনীয়।

আইসিএবির প্রেসিডেন্ট দেওয়ান নুরুল ইসলাম বলেন, আমরা এমন একটি ডিজিটাল পৃথিবীতে বাস করছি, যেখানে দৈনন্দিন জীবনে প্রযুক্তি প্রভাব অত্যন্ত ব্যাপক। প্রতিদিনই আমরা সাইবার অপরাধের শিকার হতে পারি।

আইসিএবির উইমেন অ্যান্ড লিডারশিপ কমিটির চেয়ারম্যান পারভীন মাহমুদ বলেন, আমাদের নারী সদস্যদের মধ্যে সাইবার হুমকির বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতেই এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স অ্যান্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারপারসন লাফিফা জামাল বাসায় সন্তানদের ইন্টারনেট ব্যবহারের বিষয়ে অভিভাবকদের আরো সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, অতিমাত্রায় ইন্টারনেট আসক্তি তাদের মস্তিষ্কের বিকাশ বাধাগ্রস্ত করতে পারে। নিরাপত্তার জন্য ফেসবুকের ইউজার নেইম কিংবা পাসওয়ার্ডের ক্ষেত্রে প্রচলিত শব্দ ব্যবহার করা যাবে না।

জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান লুনা সামসুদ্দোহা বলেন, নারীসহ সবাইকে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাব ও মোবাইল ফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে সতর্ক থাকা উচিত।

ডিএমপির সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম ডিভিশনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার সাইদ নাসিরুল্লাহ বলেন, আমাদের কাছে যে পরিসংখ্যান রয়েছে তাতে দেখা যায়, অধিকাংশ সাইবার অপরাধীই হচ্ছে উচ্চশিক্ষিত। বিদ্যমান আইন সম্পর্কে অজ্ঞতার কারণে তারা অপরাধে জড়িয়ে যাচ্ছে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close