জাতীয়

‘যথেষ্ট হয়েছে, এবার তোমরা ক্লাসে ফিরে যাও’; প্রধানমন্ত্রী

বার্তাবাহক ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নিরাপদ সড়ক দাবির আন্দোলনে তৃতীয় পক্ষ ঢুকে গেছে। তারা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে যেকোনো কিছুই করাতে পারে। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ‘যথেষ্ট হয়েছে, তোমাদের সব দাবি পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এবার তোমরা ক্লাসে ফিরে যাও।’

রোববার সকালে সরকারি গণভবনে এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরাতে অভিভাবক ও শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান। বলেন, ‘আপনারা তাদের ক্লাসে ফিরিয়ে নিন, পড়াশোনা করা তাদের দায়িত্ব।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘তৃতীয় পক্ষ মাঠে নেমে গেছে, ঢাকার বাইরে থেকে লোক নিয়ে এসেছে এখানে, তাদের কাজ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করা, যখনই আমি এটা জেনেছি, আমি আতঙ্কিত বোধ করছি। শিক্ষার্থীদের এখন যদি কিছু হয়, তবে এর দায়িত্ব কে নেবে?’

শিক্ষার্থীদের দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, ‘দাবি-দাওয়া যা ছিল, সবই একে একে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। যেখানেই স্কুল, সেখানেই ট্রাফিক থাকবে, রাস্তা পারাপার করিয়ে দেবে। আন্ডারপাস করা হবে। ওভারব্রিজ হবে, তবে তা যেন ব্যবহার করে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ থেকে ট্রাফিক সপ্তাহ শুরু হয়েছে। স্কুল থেকেই যাতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করা যায়, সে বিষয়ে আমরা পদক্ষেপ নেব।’

বিএনপি-জামায়াতকে ইঙ্গিত করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা আগুন সন্ত্রাস করেছে, তারা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে যেকোনো কিছুই করাতে পারে। সবাই তাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকবেন। কাউকে অস্থিতিশীল পরিস্থিত তৈরির সুযোগ দেয়া যাবে না।’

শনিবার জিগাতলার ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মাথায় হেলমেট পরে, লাঠি নিয়ে আমাদের কার্যালয়ে হামলা করা হয়েছে। এরা কারা? আমার ছেলেরা ধানমন্ডির কার্যালয়ে বসে বারবার বলেছে, তারা রক্তাক্ত হচ্ছে। আমি তাদের বলেছি, তোমরা ধৈর্য ধর। আপনারা ইতোমধ্যে জেনে গেছেন, একটি দলের একজন সিনিয়র নেতা কিভাবে লোকজন ঢাকায় এনে আন্দোলনে নামানোর জন্য হুকুম দিয়েছেন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে তৃতীয় পক্ষ ঢুকে গেছে। তারা শিক্ষার্থীদের ইউনিফর্ম পড়ে আইডি কার্ড নিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে। বিভিন্ন জায়গায় ইউনিফর্ম ও আইডি কার্ড বিক্রি বেড়ে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘আপনার কেউ গুজব-অপপ্রচারে কান দেবেন না। প্রযুক্তিকে সঠিক ও গঠনমূলকভাবে কাজে লাগাবেন।’

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close