আন্তর্জাতিক

ভয়াবহ কূটনৈতিক টানাপোড়েনে যুক্তরাষ্ট্র-তুরস্ক

আন্তর্জাতিক বার্তা : তুরস্কের দুই মন্ত্রীর ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘটনায় ওয়াশিংটন ও আংকারার মধ্যে তীব্র কূটনৈতিক টানাপোড়েন শুরু হয়েছে। এক মার্কিন ধর্মযাজককে কারাবন্দি রাখার ঘটনায় ওই দুই মন্ত্রীর অগ্রণী ভূমিকার অভিযোগ তুলে বুধবার মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের নিষিদ্ধ করা হয়। প্রতিক্রিয়ায় তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে হুঁশিয়ার করা হয়, এই পদক্ষেপ দুই দেশের সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। দেশটির সেক্যুলার জাতীয়তাবাদী ধারার রাজনৈতিক দল গুড পার্টির পক্ষ থেকে এরইমধ্যে ইস্তাম্বুলের ট্রাম্প টাওয়ার বাজেয়াপ্ত করতে এরদোয়ানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

২০১৬ সালে অ্যান্ড্রু ব্রানসন নামের ওই মার্কিন যাজককে প্রথম আটক করা হয়। তাকে দু’বছর ধরে আটক রাখার পর গত সপ্তাহে গৃহবন্দি করা হয়। ওই যাজকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ এনেছে তুরস্ক। ব্রানসনের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযোগ – তিনি কুর্দি বিদ্রোহীদের সমর্থক। সে কারণে সাম্প্রতিক ব্যর্থ অভ্যুত্থানের সঙ্গে তার সংযোগ রয়েছে বলেও মনে করে তুরস্ক। তবে মার্কিন কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে আনা সন্ত্রাসবাদের অভিযোগকে ভিত্তিহীন আখ্যা দিয়েছে। তাকে আটক রাখার প্রতিবাদে তুরস্কের দুই মন্ত্রীর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়। সামরিক জোট ন্যাটোর সদস্য কোনও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এমন মার্কিন পদক্ষেপের এটাই প্রথম ঘটনা।

বুধবার হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারা স্যান্ডার্স যাজক আটকের ঘটনাকে ‘অন্যায়’ বলে অভিহিত করেন। স্যান্ডার্স বলেন, যাজক আটকের ঘটনায় বিচারমন্ত্রী আবদুল হামিদ গুল এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সোইলু অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। তিনি জানান, ওই দুই মন্ত্রীর স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি এই মার্কিন নিষেধাজ্ঞার আওতায় আসবে। নিষেধাজ্ঞার আওতায় আমেরিকায় তুরস্কের দুই মন্ত্রীর গচ্ছিত সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার পাশাপাশি তাদের সঙ্গে যেকোনো আর্থিক ও বাণিজ্যিক লেনদেন করার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের লিখিত বিবৃতিতে এ ঘটনাকে আংকারার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের প্রচেষ্টা এবং তুর্কি বিচার প্রক্রিয়ার প্রতি অবমাননা আখ্যা দেওয়া হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, এই ঘটনা দুই দেশের মধ্যে বিরাজমান সংকট উত্তোরণের ইতিবাচক পদক্ষেপকে ভয়াবহভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। তুরস্কের গুড পার্টি সে দেশে থাকা ‘ট্রাম্প টাওয়ার’ বাজেয়া্প্ত করে এর প্রতিশোধ নিতে ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের প্রতি আহ্বান জানান।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close