বিনোদন

মোদীকেই ফের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চান কঙ্গনা

বিনোদন বার্তা : ভারতের ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে যেন জয়ী হন নরেন্দ্র মোদী। পরবর্তী পাঁচ বছরও যেন তাকেই দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীর আসনে। মনের কথা অকপটেই জানিয়ে দিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। তার চোখে, গণতন্ত্রের যোগ্য নেতা মোদীই। এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশ করেছে ভারতের সংবাদ প্রতিদিন পত্রিকা।

বিরোধীরা যতই মোদীর বিরুদ্ধে সুর চড়ান, যতই মহাজোট করে মোদীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিন না কেন, দেশের উন্নতির স্বার্থে কঙ্গনা কিন্তু বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর উপরই ভরসা রাখতে চান। তার মতে, মোদী জমানাতেই উন্নতির মুখ দেখবে এ দেশ। সঠিক পথেই ভারতকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজটি করছেন তিনি। তাই অন্তত ২০২৪ সাল পর্যন্ত মোদী মসনদে থাকলে দেশের সার্বিক উন্নতিই হবে।

সম্প্রতি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে মোদীর ছেলেবেলা নিয়ে তৈরি ছবি ‘চলো জিতে হ্যায়’। মুম্বাইয়ে যে ছবির স্ক্রিনিংয়ে হাজির ছিলেন জাতীয় পুরস্কার জয়ী অভিনেত্রী। ছবিটি দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছেন তিনি। বলেন, ‘ছবির উপস্থাপনা অসাধারণ। ছবিতে দেখানো হয়েছে কীভাবে প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও খুদে মোদী অন্যকে বাঁচার প্রেরণা জুগিয়েছে। তবে আমার মনে হয় ছবিতে শুধু মোদীকেই দেখানো হয়নি। বরং সুন্দর সমাজ গড়তে আমাদের কীভাবে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, সেটাই এর মূল বিষয়বস্তু। ছবিটা যেন জীবনেরই একটা অংশ।’ তারপরই তার মুখে শোনা যায় প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসার ক্ষেত্রে তিনিই সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী। বাবা বা মায়ের হাত ধরে তিনি এই জায়গাটায় পৌঁছাননি। গণতন্ত্রের যোগ্য নেতা তিনিই। আমরাই তাকে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসিয়েছি। দীর্ঘ পরিশ্রমের পরই এই স্থান অর্জন করতে পেরেছেন তিনি। তাই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার দক্ষতা নিয়ে কোনও প্রশ্ন করা চলে না।’ আর এই কারণেই কঙ্গনা চান, পরবর্তী পাঁচ বছরও মোদী এই আসনে থাকুন। কারণ পাঁচটা বছর দেশকে খাদ থেকে তুলে আনার পক্ষে অত্যন্ত কম সময়। তাই আরও খানিকটা সময় দেওয়া হোক তাকে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close