খেলাধুলা

বিপিএলের ষষ্ঠ আসর ৫ জানুয়ারি থেকে

খেলাধুলার বার্তা : বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) নতুন সূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে। রবিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে গভর্নিং কাউন্সিলের এক সভা শেষে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, আগামী ৫ জানুয়ারি থেকে বিপিএলের ষষ্ঠ আসর শুরু হবে।

জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু হয়ে বিপিএল চলবে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। টুর্নামেন্টের ভেন্যু আগের মতোই তিনটি থাকছে। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ছাড়াও সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম ও চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বিপিএলের সবগুলো ম্যাচ হবে।

সভা শেষে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলনের সদস্য জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘জাতীয় নির্বাচনের কারণে আমরা আগের নির্ধারিত সময়ে টুর্নামেন্ট শুরু করতে পারছি না। নতুন সূচি অনুযায়ী আগামী ৫ জানুয়ারি থেকে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হবে বিপিএল।’

গতবারের মতো এবারও ৭ দল খেলবে এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে। এবার ৪ জন পুরানো খেলোয়াড়কে ধরে রাখতে পারবে প্রত্যেক দল। এই ৪ জন হতে পারে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে। এক্ষেত্রে কোনও বাধ্যবাধকতা রাখেনি বিসিবি।

গত আসরে ৫ জন বিদেশি খেললেও এবার এই ইস্যুতে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। এনিয়ে জালাল ইউনুস বলেছেন, ‘গতবার পাঁচ বিদেশি ক্রিকেটার খেলতে পারলেও এবার কী হবে এখনও ভাবিনি আমরা। সামনে আবারও বসবো আমরা। তারপর সবকিছু চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নেব।’

গভর্নিং কাউন্সিলের সঙ্গে এদিন সন্ধ্যায় ফ্র্যাঞ্চাইজিরগুলোও বসেছিল। সেখানে ছিলেন খুলনা টাইটানসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী ইনাম আহমেদ। এই উন্মুক্ত সভা টুর্নামেন্টে দারুণ কাজে দেবে মনে করছেন তিনি, ‘আমাদের অনেকগুলো বিষয় নিয়ে আলাপ হয়েছে। ফ্র্যাঞ্চাইজিদের পক্ষ থেকে আমি বলতে চাই, এই ধরনের খোলামেলা সভা এর আগে হয়নি। আমাদের জন্য এটা দারুণ সুযোগ। আমরা আমাদের মতামত জানাতে পেরেছি। ধরে রাখা (রিটেইন) খেলোয়াড়দের নিয়ে তারা আমাদের সঙ্গে একমত হয়েছেন। দলগুলো ইচ্ছেমতো দেশি কিংবা বিদেশি খেলোয়াড়দের নিবন্ধন করেন। এ ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা করতে হবে। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলও তেমনটাই মনে করছে।’

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close