আলোচিতসারাদেশ

বিদেশগামী কর্মীদের টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু

বার্তাবাহক ডেস্ক : বিদেশগামী কর্মীদের টিকা গ্রহণের জন্য দ্বিতীয় ধাপে সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধন শুরু হয়েছে।

সোমবার (৫ জুলাই) অনলাইনে এর উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

অনলাইনে যুক্ত ছিলেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এসময় আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধন সম্পন্ন করার একটি ডেমো পরিচালনা করে দেখান।

প্রসঙ্গত, বিদেশগামী কর্মীদের টিকা নেওয়ার জন্য আমি প্রবাসী অ্যাপ ব্যবহার করে কিংবা জেলা জনশক্তি অফিসে গিয়ে বিএমইটি নিবন্ধন করার পর সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে টিকার জন্য নিবন্ধন করতে হবে।

অনলাইনে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মেলনে আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে এনআইডি দিয়ে নিবন্ধনের পাশাপাশি বিশেষভাবে আরেকটি অপশন চালু করা হয়েছে যেখানে পাসপোর্ট নম্বর দিয়ে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাবে। নিবন্ধন (পাসপোর্ট) অপশনে ক্লিক করলে একটি পাতা চালু হবে। সেখানে শ্রেণি (ধরণ) নির্বাচন করতে হবে। এখানে তিনটি ধরণ আছে, সেখান থেকে বিদেশগামী বাংলাদেশি কর্মী নির্বাচন করলে আরেকটি উপশ্রেণি দেখানো হবে। উপশ্রেণিতে দুই ক্যাটাগরি আছে- সৌদিআরব ও কুয়েতগামী বাংলাদেশি কর্মী এবং অন্যান্য দেশে বিদেশগামী কর্মী। অপশন নির্বাচন করার পর একটি পাতা চালু হবে। সেখানে পাসপোর্ট নম্বর, জন্ম তারিখ এবং সিকিউরিটি কোড প্রদান করতে হবে। এসময় একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) নম্বর মোবাইলে চলে যাবে। সেই নম্বর প্রবেশ করে বাকি তথ্য যেমন- কোন কেন্দ্রে টিকা নেবেন, পেশা ইত্যাদি তথ্য দেওয়ার পর আবারও সাবমিট করতে হবে।

নিবন্ধন শেষ করার আগে আরেকটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) নম্বর মোবাইলে চলে যাবে। সেটি উল্লেখ করলেই নিবন্ধন সম্পন্ন হবে।

উল্লেখ্য, সৌদিআরব ও কুয়েতগামী কর্মীদের জন্য ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে শুধু রাজধানীর ৭টি কেন্দ্রে। কেন্দ্রগুলো হলো ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল।

আর অন্যান্য দেশে গমনকারী কর্মীদের ক্ষেত্রে সিনোফার্মের টিকা দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে সারাদেশের জেলা উপজেলা পর্যায়ে সরকারি হাসপাতাল থেকে নেওয়া যাবে এই টিকা। তবে সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে সেই কেন্দ্র নির্বাচন করেই নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে।

আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা আরও জানান, নিবন্ধনের পর মোবাইলে টিকা নেওয়ার কেন্দ্রের নামসহ তারিখ একটি এসএমএস’র মাধ্যমে জানানো হবে কেন্দ্র থেকেই। এসএমএস না আসলে টিকার জন্য কেন্দ্রে ভিড় না করারও অনুরোধ জানানো তারা।

ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা এ বি এম খুরশিদ আলম জানান, ফাইজারের টিকা যে তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয় সেই সুবিধা ঢাকার বাইরে কোথাও নেই। তাই ঢাকার ৭টি হাসপাতালে এই ব্যবস্থা করতে হয়েছে। আর সিনোফার্ম সারাদেশেই দেওয়া যাবে। ফাইজারের টিকা প্রদানের প্রক্রিয়া বেশ জটিল তাই দিনে এক কেন্দ্রে ২০০ মানুষের বেশি আমরা দিতে পারবো না।

আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেন, আমাদের রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় আন্তরিক। সেখানে কর্মীদের বিদেশ যাওয়ার জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা আমরা সমাধানের জন্য বেশ কয়েকদিন ধরে চেষ্টা করছি। সবার অক্লান্ত চেষ্টায় পরিশ্রমে আমরা আজকে এই বিশেষ রেজিস্ট্রেশন উন্মুক্ত করতে যাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও যুক্ত ছিলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, বিএমইটি মহাপরিচালক শহীদুল আলম, এনডিসি, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আইয়ূব চৌধূরী,ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের পরিচালক (এনটিএমসি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিয়াউল আহসান প্রমুখ।

 

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close