আইন-আদালতআলোচিতগাজীপুর

কালীগঞ্জের ইউপি নির্বাচনের নির্বাচনী বিরোধ নিষ্পত্তিতে ‘ট্রাইব্যুনাল’ গঠন

বার্তাবাহক ডেস্ক : কালীগঞ্জের ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনী বিরোধ সংক্রান্ত বিভিন্ন অভিযোগ গ্রহণ, শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য গাজীপুরে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে নির্বাচন কমিশন।

বুধবার (৩০ জুন) এ সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) আফরোজা শিউলি স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়েছে, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচনী বিরোধ সংক্রান্ত দায়েরকৃত নির্বাচনী দরখাস্ত ও আপিল গ্রহণ, শুনানি ও নিষ্পত্তির লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল এবং নির্বাচনী আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

আদেশে আরো বলা হয়েছে, ‘স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ধারা ২৩ এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নির্বাচন কমিশন, আইন ও বিচার বিভাগ, আইন ও বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের সাথে পরামর্শক্রমে ২৯ জুন জারিকৃত পত্রের প্রেক্ষিতে ১ম ধাপে কালীগঞ্জ উপজেলার তুমুলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালিয়া, বাহাদুরসাদী, জামালপুর এবং মোক্তারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সংরিক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য ও সাধারন ওয়ার্ডের সদস্য পদে নির্বাচনে নির্বাচনী বিরোধ সংক্রান্ত দরখাস্ত/আপিল গ্রহণ, শুনানি ও নিষ্পত্তির লক্ষ্যে “গাজীপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের সিনিয়র সহকারী জজ” এর সমন্বয়ে “নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল” এবং ” গাজীপুরের যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ-১ম আদালত (সদস্য নং ১) এবং গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (সদস্য নং ২)” এর সমন্বয়ে নির্বাচনী আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

আইন ও বিচার বিভাগ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ট্রাইব্যুনাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগগুলো নিষ্পত্তিতে কাজ করবে।

গত ২১ জুন কালীগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সংরিক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য ও সাধারন ওয়ার্ডের সদস্য পদে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধ্যাদেশ অনুযায়ী, নির্বাচনী ফলের গেজেটে প্রকাশের ৩০ দিনের মধ্যে ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করা যাবে। এই ট্রাইব্যুনাল নির্বাচন সংক্রান্ত যে কোনো মামলা ১৮০ দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করবে।

নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের রায়ে সন্তুষ্টু না হলে রায় ঘোষণার ৩০ দিনের মধ্যে নির্বাচনী আপিল ট্রাইব্যুনালে আপিল করা যাবে। আপিল ট্রাইব্যুনাল ১২০ দিনের মধ্যে তা নিষ্পত্তি করবে।

উল্লেখ্য: কালীগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে তিনটিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী এবং একটিতে স্বতন্ত্র প্রাথী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী কোন প্রার্থী না থাকায় তুমুলিয়া এবং মোক্তারপুর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

কালীগঞ্জ উপজেলার তুমুলিয়া, বক্তারপুর, জাঙ্গালিয়া, বাহাদুরসাদী, জামালপুর এবং মোক্তারপুর ইউনিয়ন পরিষদে ২১ জুন ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ছয় ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৬ জন প্রার্থী। এছাড়াও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৫৭ প্রার্থী। অপরদিকে সাধারণ সদস্য পদে ২০৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। ছয় ইউনিয়নের মধ্যে তুমুলিয়া এবং মোক্তারপুরে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী কোন প্রার্থী না থাকায় সদস্য পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close