রাজনীতি

মুক্তির পর জেলগেট থেকে পূণরায় গ্রেপ্তার ছাত্রদল সভাপতি

রাজনৈতিক ডেস্ক : দীর্ঘ সাড়ে চার মাস কারাবন্দি থাকার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে জেল থেকে বের হওয়ার পর পূণরায় গ্রেপ্তার হয়েছেন ছাত্রদল সভাপতি রাজিব আহসান।

বৃহস্পতিবার তার বিরুদ্ধে আনা সবকটি মামলা থেকে জামিন পেয়ে কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। কিন্তু পরে আবারও তাকে জেলগেট থেকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দূর্নীতি মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে। তাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানিয়ে রাজধানীর পল্টনে বিক্ষোভ মিছিল করেন ছাত্রদল সভাপতি রাজিব আহসান। ওদিন সেখান থেকেই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

রাজিবকে পূনরায় গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘দীর্ঘ সাড়ে চার মাস কারাবন্দি থাকার পর জামিনে মুক্তি পেয়ে কারাগার থেকে বের হয়েছিলেন ছাত্রদল সভাপতি রাজিব আহসান। কিন্তু জেলগেট থেকে তাকে পূণরায় গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। বিএনপি মনে করে, সরকারী অভিপ্রায় সুস্পষ্ট-সরকার অন্ধকারাচ্ছন্ন রাজনৈতিক আকাশ পরিষ্কার করতে চায়।’

বৃহস্পতিবার রাতে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

রিজভী বলেন, সরকারের ভিত্তি যেহেতু দুর্বল তাই সব মতের মানুষের কারাগার নিশ্চিত করতে তারা সব আয়াজন সম্পন্ন করেছে। এই অবৈধ সরকার ক্ষমতা হারানোর ভয়ে সবসময় শঙ্কিত, তাই নিজেদের টেনশন দূর করে ক্ষমতায় টিক থাকতে পথের কাঁটা সরাতে রাজীবের ন্যায় তরুণ ছাত্রনেতাদের বারবার গ্রেপ্তার করছে।’

এদিকে জেলগেট থেকে রাজিব আহসানকে গ্রেপ্তারের ব্যাপারে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

লন্ডন থেকে রাজিবের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে তারেক বলেছেন, ‘ছাত্রদল সভাপতি রাজীবকে জেলগেট থেকে পূণরায় গ্রেপ্তার করে হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করানো হলো আইন শৃংখলা বাহিনীকে দিয়ে। এতে করে সরকার আরকটি খারাপ নজীর সৃষ্টিতে করতে মদদ দিলো।’

অবিলম্বে রাজিবের বিরুদ্ধে আনা সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তার নি:শর্ত মুক্তি দাবী করেছেন তারেক রহমান।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close