সারাদেশ

চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত আরও তিনজন

বার্তাবাহক ডেস্ক :সারা দেশে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানের মধ্যে সাতক্ষীরা ও ময়মনসিংহে আরও তিনজন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন।

এর মধ্যে সাতক্ষীরা সদরে ‘মাদকসহ’ গ্রেপ্তার হওয়ার পর পুলিশের অভিযানের মধ্যে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন ইউনিয়ন পর্যায়ের এক যুবলীগ নেতাসহ দুইজন।

আর ময়মনসিংহের ভালুকায় পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন মাদক মামলার এক আসামি।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মে মাসে মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর প্রায় প্রতি রাতেই কথিত বন্দুকযুদ্ধে ‘মাদক বিক্রেতাদের’ নিহত হওয়ার খবর দিয়ে আসছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

এ ধরনের ঘটনায় গত দুই মাসে প্রায় দুইশ মানুষের মৃত্য হয়েছে।

সাতক্ষীরা
সাতক্ষীরা সদরে গ্রেপ্তার স্থানীয় এক যুবলীগ নেতাসহ দুইজন পুলিশের মাদক উদ্ধার অভিযানের মধ্যে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

সদর থানার ওসি মারুফ আহমেদ বলছেন, শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার বাশদাহ ইউনিয়নের কয়ার বিল এলাকায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল কালাম আজাদ কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি ইউনিয়নের আবুল কাসেমের ছেলে। তিনি কেড়াগাছি ইউনিয়ন যুবলীগের একজন নেতা।

আর নিহত দেলোয়ার হোসেন সদর উপজেলার বাশদাহ গ্রামের বাসিন্দা।

ওসি জানান, শনিবার বিকালে বাশদাহ বাজার এলাকা থেকে দুই কেজি গাঁজা ও ২০ বোতল ফেনসিডিলসহ কালাম ও দেলোয়ারকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশের সদস্যরা।

“পরে জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, আগের রাতে সীমান্ত দিয়ে মাদকের বড় একটি চালান দেশে এসেছে।”

সেই মাদক উদ্ধার করতে তাদের নিয়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে সীমান্তবর্তী বাশদাহ ইউনিয়নের কয়ার বিলে অভিযানে যায় সদর থানা ও ডিবি পুলিশের একটি দল।

“পুলিশ সেখানে পৌঁছানো মাত্র মাদক চোরাকারবারীরা গুলি ছোড়ে। পুলিশও তখন পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে কালাম ও দেলোয়ার দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করতে গিয়ে গোলাগুলির মধ্যে পড়ে। মাদক চোরাকারবারীরা পিছু হটলে কালাম ও দোলোয়ারকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।”

ওই দুইজনকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, এই অভিযানে সদর থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের পাঁচ সদস্য আহত হয়েছেন, তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে তিন কেজি গাঁজা, ২০ বোতল ফেনসিডিল, একটি ওয়ান শুটার গান, এক রাউন্ড গুলি ও চারটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করার কথাও জানিয়েছে পুলিশ।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহের ভালুকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মাদক মামলার এক আসামি নিহত হয়েছে।

নিহত মুরাদ আকন্দ (৩০) ভালুকা উপজেলার বগাজান গ্রামের শাহজাহান আকন্দের ছেলে।

তার বিরুদ্ধে মাদক চোরাচালানসহ বিভিন্ন অভিযোগে চারটি মামলা রয়েছে বলে ভালুকা থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান।

তিনি বলছেন, উপজেলার উথুরা গ্রামে মাদকের চালানের ভাগ-ভাটোয়ারা চলছে খবর পেয়ে শনিবার রাত ২টার দিকে সেখানে অভিযানে যায়।

“পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করে। পুলিশও তখন পাল্টা গুলি ছুড়লে মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হটে। পরে সেখানে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়।”

তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান ওসি।

তিনি বলছেন, এ অভিযানে দুই পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছেন। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close